ইলেক্ট্রিক কারে কি কি ধরনের কম্পোনেন্ট ব্যবহার হয়

Electric car

Electric car

ইলেক্ট্রিক কার অনেকের কাছে EVS নামে পরিচিত। ইলেক্ট্রিক কারে (Combustion Engine) এর বদলে (Electric Motor) ব্যবহার করা হয়। আর এই ইলেক্ট্রিক মোটরকে শক্তি সরবরাহ করার জন্য ব্যবহার করা হয় একটি বিশাল সাইজের ট্র্যাকশন ব্যাটারি। অর্থাৎ ব্যাটারি টি সমতলে টানা দেয়ার মত বা বিছিয়ে দেয়ার মত থাকে এবং সেই ব্যাটারি টি চার্জ দেয়ার ব্যাবস্থা থাকে। গাড়িতে চার্জ LPG ষ্টেশন/ ফুয়েল পাম্প এর মত  কোন চার্জিং ষ্টেশন থেকে চার্জ দেবার ব্যবস্থা  থাকতে পারে অথবা  নিজস্ব প্লাগ ইন ব্যবস্থাও হতে পারে।  

ইলেক্ট্রিক কারে কি কি ধরনের কম্পোনেন্ট ব্যবহার হয় আসুন জেনে নেই  

১। ইলেক্ট্রিক ট্র্যাকশন মোটরঃ

গাড়িতে যেই ব্যাটারি প্যাক (Battery Pack) ব্যবহার করা হয়, সেই ব্যাটারি থেকে পাওয়ার নিয়ে এই ইলেক্ট্রিক ট্র্যাকশন মোটর (Electric Traction Motor) এর ঘুর্নন গতি ব্যবহারের মাধ্যমে গাড়ির চাকায় শক্তি সরবরাহ করা হয়। যার ফলে গাড়ি চলমান হয়।

২। ব্যাটারিঃ

ইলেক্ট্রিক গাড়িতে প্রথম যেই কম্পোনেন্ট (Component) টি প্রয়োজন তা হল ব্যাটারি। গাড়িতে যত রকম ইলেক্ট্রিক এক্সেসরিজ রয়েছে সব কিছুই ব্যাটারি থেকে পাওয়ার পেয়ে থাকে। যদিও আলাদা এক্সেসরিজ গুলো অক্সিলারি ব্যাটারি (Auxiliary Battery) থেকে পাওয়ার (Power)নিয়ে থাকে। 

৩। পাওয়ার ইলেক্ট্রনিক কন্ট্রোলারঃ

ব্যাটারি থেকে যে এনার্জি বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ হয় এবং ট্র্যাকশন ইলেকট্রিক মোটর এর স্পিড সহ অন্যান্য কম্পোনেন্ট গুলোকে নিয়ন্ত্রন করার জন্য পাওয়ার ইলেক্ট্রনিক কন্ট্রোলার ব্যাবহার করা হয়। 

৪। কুলিং সিষ্টেমঃ 

কুলিং সিষ্টেমের গুরুত্ব সবসময়ই থাকে। ইলেক্ট্রিক কার এর ক্ষেত্রেও তার ব্যাতিক্রম নয়। গাড়ির ইলেক্ট্রিক মোটর সহ অন্যান্য কম্পোনেন্ট এর তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য এই কুলিং সিষ্টেম ব্যবহার করা হয়।

৫। ডিসি কনভার্টারঃ

এটি DC টু DC কনভার্টার যা পাওয়ার কনভার্টার এর একটি ক্যাটাগরি। এটি এমনই একটি ইলেকট্রিক সার্কিট যা DC উৎসকে এক ভোল্টেজ থেকে অন্যত্রে সাময়িকভাবে ইনপুট এনার্জি জমার দ্বারা পরবর্তীতে এটি বিভিন্ন প্রকার ভোল্টেজ অউটপুট করে পাওয়ার ট্র্যান্সফার করে মাত্র একটি ডিরেকশনে।  

Electric car

৬। চার্জিং পোর্টঃ

যেহেতু একটি বিশাল সাইজের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয় তাই এই ব্যটারি চার্জ করার জন্য এক্সটার্নাল চাজিং পোর্ট (Charging Port) এর ব্যবস্থা থাকে।

৭। অনবোর্ড চার্জার (OBC)

চার্জিং পোর্ট থেকে যখন অনবোর্ড চার্জার এর মাধ্যমে গাড়ির ব্যাটারি প্যাক কে চার্জ করা হয় । সেটি এসি কারেন্ট ( AC Current) কে ডিসি কারেন্ট (DC Current) রুপান্তর করে। এই চার্জার ব্যাটারির বিভিন্ন বৈশিষ্ঠ্য মনিটর করে। যেমনঃ ভোল্টেজ, তাপমাত্রা এবং ব্যাটারি চার্জ হবার সময় কতটুকু চার্জ হয়েছে। এর দ্বারা হাই ভোল্টেজ ব্যাটারি রিচার্জ করা হয়।

৮। মেইন ইনভারটারঃ

এটি ইলেকট্রিক মটরকে নিয়ন্ত্রন করে একে ইলেকট্রিক কার এর প্রধান উপাদানও   

বলা হয়।

৯।বি এম এসঃ এর দ্বারা মূলত ব্যাটারির চার্জ ও ডিসচার্জ নিয়ন্ত্রন করা হয়।

Electric car

Facebook Comments Box

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *